বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্ত প্রতিবেদন সরকারের হাতে

বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ চুরির ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি বুধবার সরকারের কাছে তার রিপোর্ট জমা দিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের হাতে এই প্রতিবেদন তুলে দেন।

তবে এই প্রতিবেদনে কী রয়েছে সে সম্পর্কে কর্মকর্তারা এখনি মুখ খুলছেন না।

গত ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে রাখা বাংলাদেশের প্রায় ১০০ কোটি ডলার চুরির চেষ্টা হয়।

এর মধ্যে ১০ কোটি ডলার চুরির চেষ্টা সফল হয়।

তবে এরই মধ্যে দুই কোটি ডলার উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

বাকি আট কোটি ডলার ফিলিপাইনের ক্যাসিনোতে চলে গেলেও তা উদ্ধারে এখনও চেষ্টা চলছে।

এই অর্থ চুরি কেলেঙ্কারির দায় মাথায় নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান গত ১৫ই মার্চ পদত্যাগ করেন।

এরপর সরকার ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করলে ২২শে মার্চ থেকে কমিটি তদন্ত শুরু করে।

কমিটিতে অন্য দুই সদস্য ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গকুল চাঁদ দাস এবং বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. কায়কোবাদ।