সাবাস বাঘিনী কন্যা রোশনারা আলী:

আমাদের বাংলাদেশী বোন রোশনারা আলীর প্রচেষ্টায় ব্রিটেনের সাথে মায়ানমারের সকল সামরিক কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছেন ।
রোশনারা আলীর প্রস্তাবের পর তিনি ব্রিটেন সরকারকে রোহিঙ্গাদের উপর অত্যাচার সহ যাবতীয় নির্মম কাজের তথ্যপ্রমাণ উপস্থাপন করেন ফলে মিয়ানমারের বর্বর সেনাদের সকল ধরনের আর্থিক সহযোগীতা ও সেনাদের সকল ধরণের ট্রেনিং ও অস্ত্র বিক্রির উপর স্থগিত করেছে ব্রিটেনের পার্লামেন্টীয় সরকার।
বাঘা বাঘা মুসলিম দেশের রাষ্ট্রপ্রধান যেখানে চুপ কিছুর করছেন না কেবল সহানুভূতি ও নিন্দা ছাড়া সেখানে রুশনারা আলী ব্রিটেনকে নিয়ে আমাদের পাশে নিয়ে এসে দাড়িয়েছেন।
তিনি যদি ব্রিটিশ এমপি না হতেন তবে কেউ আমাদের দেশের সমস্যা রোহিঙ্গা ইস্যুকে ব্রিটেনে তুলে আমাদের পাশে এসে দাঁড়াতোঁ না । বিদেশে যেমন কিছু সেকুলার নামে পাবলিক বাংলাদেশী হয়েও অসহায় রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে কুৎসা রটাচ্ছে । তেমনি রোশনারা আলীর মতন মানুষ বাংলাদেশী বংশধর হয়ে পুরো ব্রিটেনকে রোহিঙ্গাদের পাশে এনে দাড় করিয়েছেন বাতিল করেছেন সকল সামরিক চুক্তি এমনকি লজ্জায় ফেলেছেন সুচিকে পুরস্কার বাতিল করেও ।
আপনার প্রশংসা না করে পারছিনা ।
বাংলাদেশের পক্ষ হতে আমার এই মমতাময়ী বোনের প্রতি শুভেচ্ছা ও ভালবাসা রইল । আপনার মতন যেন সকল প্রবাসী ভাই বোনেরা যারা শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছেন। বাংলাদেশের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়ায়।