(১০):প্রবাসে বাঙ্গালি পুরুষের মর্যাদা

 সিনোপসিস (১০): প্রবাসে বাঙ্গালি পুরুষের মর্যাদা –পৌরুষত্বেই পুরুষের মর্যাদাএ কথা প্রাচীনকাল থেকে শোনা গেলেও বাস্তবে পৌরুষত্বের ধরাবাঁধা কোন definition নাই। প্রবাসে বাঙ্গালি পুরুষের সামরিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক বিজয়কে মোটামুটি ভাবে পৌরুষত্বের মর্যাদা বলে উল্লেখ করা হয়। বাঙ্গালীর মর্যাদা অর্জন প্রাচীন কাল থেকেই শুরু হয়েছিল।

সংক্ষিপ্ত ভাবে বলা যায়  বাঙ্গালির বীর ছেলে বিজয় সিংহের লঙ্কা বিজয়, অতীশ দীপঙ্করর একটি জাতির শ্রদ্বা বিজয় থেকে শুরু করে এই শতক পর্যন্ত যত  মর্যাদা অর্জন হয়েছে তা  অনেকাংশে ঘর থেকে বের হয়েই হয়েছে । ব্যাপকভাবে বাংগালীর  প্রবাস যাত্রার প্রাক্কালেই  জাহাজী নেতা আফতাব আলীর জেনেভার ভাষন , রাজা রামমোহনের কালাপানি পার হওয়া সহ প্রবাসে অনেক মর্যাদা অর্জনের ইতিহাস রয়েছে ।  রবীন্দ্রনাথ, ড. ইউনুস, অমর্ত্য সেন সবাইকে ঘর থেকে বের হয়েই নোবেল অর্জন করতে হয়েছে। প্রবাসে যারা স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন তারাও বিভিন্ন সময়ে মর্যাদা অর্জন করেছেন। সুতরাং প্রবাসে আমাদের সুউজ্বল ইতিহাস রয়েছে ।স্বাধীনতার উত্তপ্ত সময়গুলোতে প্রবাসী বাঙ্গালির মর্যাদা অর্জন ছিল সর্বকালের শ্রেষ্ঠ অর্জন। অথচ স্বাধীনতা অর্জনের পর থেকে আন্দোলন প্রিয়তাই ধীরে ধীরে কলুষিত রাজনীতি চর্চা আর আঞ্চলিক এবং দলীয় কোন্দলে রূপ নেয়। মর্যাদা অর্জনে অদ্যাবধি যে বাঁধা বা প্রতিবন্ধকতা হয়ে আছে তার মুলে রয়েছে শিক্ষাহীনতা। এছাড়া দেশ থেকে বয়ে আনা গ্রাম্য রাজনৈতিক কোন্দলও অনেকাংশে দায়ি।  তাই আমরা দেখতে পাই ৩ জেনারেশন পার হয়ে যাওয়ার পর বিলেতে  ঐ দিন একজন মহিলা এমপি নির্বচিত করতে পেরেছি। যা এখনো পর্যন্ত কোন পুরুষ অর্জন করতে পারেনি। মাত্র কয়েক দিন আগে লণ্ডনে একজন মেয়র নির্বাচিত হয়েছে। হ্যানসেন ক্লার্ক পেক্ষাপট ছাড়া  আমেরিকা ক্যানাডাতে এখনো পর্যন্ত সম্ভব হয়নি সুতরাং এই মর্যাদা অর্জনে ব্যর্থতার পেছনে যে ব্যাধি  রয়েছে তা আগে নির্নয় প্রয়োজন । সমস্ত ব্যর্থতার চোখ খুলে দেওয়ার রাস্তা একটাই,আর তাহল শিক্ষাশিক্ষার অভাবেই একজন পুরুষ স্ত্রীকে গলাটিপে হত্যা করে নিজের পৌরষত্বের পরিচয় দেয়। অথচ এটা পুরুষের জন্য লজ্জা ভিন্ন অন্য কিছু নয়।নারীকে সম্মান করতে পারলেই পৌরুষত্ব আরো মহীয়ান হয়ে ওঠে। নিজেদের মধ্যে কোন্দল করে পৌরষত্ব জাহির করা মর্যাদার নয় লজ্বার । নিজেকে স্বশিক্ষিত করা এবং সমাজের শিক্ষিত জ্ঞানী, গুনিদের মর্যাদা দেওয়ার মধ্য দিয়ে পৌরুষত্বের মর্যাদা অর্জন হয়। প্রবাসে কম্যুনিটিতে যখন শিক্ষার কদর বাড়বে তখন অন্য জাতির কাছে মর্যাদাও বাড়বে ।

ঊপরের চিত্রতে অতীশ দীপঙ্কর

Synopsis ( 10) :Dignity of  immigratated Bangladeshi masculinity

Once the dignity of the masculine’s were determined by  heroism. But for such a quality, there is no hard and fast definition. This has been defined for them abroad in term of socio-economic, politico-military standing in the communities of the absorbing countries… We have examples of our highly celebrated heroes of ancient time such as Bijoy Singh, Atish Dipanker and so on. In a time when crossing the was an unpardonable sin, Bangladeshis have earned name and fame by taking ships. Jahaji Leader Aftab, Rammohon Roy are examples of immediate past. But very recent examples are Dr. Younus and A.K Sen. All have earned name and fame through travelling abroad. And the basic ingredient of their success is education. More recent examples are Roshnara M.P. Hansen hashem Klerke. But these  are stray example of success while the large segment  is behind the scene because of the lack of education-relevant education-value loaded comprehensive education. Bangladeshi community in North America must pursue the highest level of education to get rid of all their malaises and to achieve a significant place of dignity and respect in the communities of  all ethnicities..

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*