(৩)বিয়ানীবাজার সমিতির অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি -ক্যানাডাবিডি নিউজ সম্পাদকের দেওয়া বক্তব্য !

বিয়ানীবাজার সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সমিতির অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি -ক্যানাডাবিডি নিউজ সম্পাদকের দেওয়া বক্তব্য !
আজকের সভার সভাপতিবিয়ানীবাজারবাসী ও দেশের অন্যান্য অঞ্চলের সুধীজন।ক্যানাডাবিডি নিউজের সম্পাদক হিসাবে আপনাদের অভিষেক অনুষ্ঠানে আমাকে আমন্ত্রন করার জন্য এবং কিছু বলার সুযোগ দেওয়ার জন্য আপনাদেরকে আমার অসংখ্য ধন্যবাদ।

এ সুযোগে আমি আমার ব্যক্তিগত কিছু কৃতজ্ঞতার কথা আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই। পৃথিবীতে অনেক দুরুহ কাজের মধ্যে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করাও অনেক কঠিন কাজ। মানুষের  অভ্যন্তরে লুকিয়ে থাকা এবং মানুষ কর্ত্তৃক লালনকৃত এক অশুভ শক্তিই মানুষকে কৃতজ্ঞতা স্বীকারে বিরত রাখে।সেই অশুভ শক্তিযাদেরকে গ্রাস করে বসে তাদেরকে আমরা মুলতঃ কৃতজ্ঞ বলি । আমি এই গ্রাস  থেকে নিজেকে অনেক দূরে রাখতে পেরেছি বলে গর্ববোধ করি।

A friend in need is a friend indeed  প্রয়োজনের বন্ধুই প্রকৃত বন্ধু। বিগত একযুগে বিভিন্ন সময়ে আমি বিয়ানীবাজারবাসীর কাছ থেকে সেই প্রমাণ পেয়েছি। ১৯৯৭ সালে আমি আমেরিকা থেকে ইমিগ্র্যান্ট হয়ে ক্যানাডায় এক অপরিচিত পরিবেশে এসেছিলাম। আমার সাহায্যের প্রয়োজন ছিল। আপনাদেরই মানিক ভাই নিজের বেডরুম আমাদের জন্য ছেড়ে দিয়েছিলেন । ১ মাস আমাকে সময় দিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে সহায়তা করেন। একজন নতুন ইমিগ্র্যান্টের বাসা নেওয়ার পর সেটেলম্যান্ট সার্ভিসের প্রয়োজন হয়। আমি প্রতিটি মুহূর্তে আপনাদেরই লোক তুতিউর রহমান ও ভাবীর ( উনার  স্ত্রী)  সার্বক্ষণিক সহযোগিতা পেয়েছি। ক্যানাডাতে আসার মাত্র ৬ মাসের মধ্যে আজকের সভাপতি আপনাদের বড় ভাই (সাইওন ভাই)  এর সাথে আমার দেখা হয়। আমি ওনার কাছে সকল সাহায্যের আশ্বাস পেয়েছি। আপনাদের শাহাব ভাই আমার দীর্ঘ দিনের বন্ধু। নিউইয়র্ক থেকে ক্যানাডাতে আসা পর্যন্ত   দুঃসময়ে সুময়ে আমরা ছিলাম এবং এখনো আছি।মূলতঃ শাহাব ভাই এর মাধ্যমেই আপনাদের অনেকের সাথে আমার পরিচয় । দীর্ঘ ১২ বছর আমি লিখার মাধ্যমে এবং সময়ে সময়ে অন্যান্য সহযোগিতার মাধ্যমে আমি সিলেট বাসীকে বিভিন্ন বিষয়ে মটিভেট করার চেস্টা করেছি । কতটুকু পেরেছি তা আমার বিচারের বিষয় নয় । তবে না চাওয়াতেও যে কোন কোন সময় কর্মের প্রতিদান আপনাতেই চলে আসে সেই প্রমান আমি পেয়েছি । আমি যাদের কাছে কোনো সাহায্য প্রার্থনা করি নাই তারাই আমার অজান্তে অন্যায়ের প্রতিবাদে নেমে এসেছে;  বিবেক নাড়া দিয়েছে বিয়ানীবাজার বাসীর-এটা শুধু বিয়ানী বাজার বাসী বলে নয়, সুস্থ মানষিকতা সম্পন্ন মানুষের জ্ঞানের এক্সারসাইজ হয় বিষয় উপলব্দির মাধ্যমে। আমি আপনাদের বিষয় উপলব্দির চমৎকার প্রমান পেয়েছি, তাই সত্যিকার ভাবেই কৃতজ্ঞ। আমাদের প্রয়োজন আরও ৪/৫ জন বড় ভাই-যাদের হুঙ্কারে অন্যায় স্থব্ধ হয় আজকের অভিষেক অনুস্টানে একজন বক্তা বলেছেন বিয়ানীবাজার বাসী ইউনাইটেড থাকলে কম্যুনিটিতে অনেক অন্যায় কাজ ঠেকানো সম্ভব আমি তার সাথে একমত ।সুতরাং  কম্যুনিটিতে আপনাদের সরব উপস্থিতি প্রয়োজন ।

     একটি উপজেলা লেবেলের সংগঠন হয়েও পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বিয়ানী বাজার সমিতি বা সংগঠন সিলেটের একটি শক্তিশালী সংগঠন হিসাবে নিজের স্থান পোক্ত করে নিয়েছে। আমরা মনে করি এটা সম্ভব হয়েছে একমাত্র  Unity , Dedication and Determination  এর কারণে। অনেক আঞ্চলিক সংগঠনেই তা সম্ভব হয়ে উঠে না। সুতরাং বিয়ানী বাজার বাসীর  সংগঠনই হচ্ছে জ্বলন্ত প্রমাণ যে ভাল কাজ যে কোনো অবস্থানে থেকেও করা সম্ভব।
    
পৃথিবীতে ২ ধরনের কাজ হয় ভাল কাজ ও মন্দ কাজ (Human Act and  Satanic Act ) এর মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে ভাল কাজই মানুষের দ্বারা হয় এবং মন্দ কাজ শয়তানের প্ররোচনায় হয় ।  কোন সমস্যার সমাধান করা, সমস্যাকে কবর দেওয়া ,  সামাজিক ও সাংগঠনিক বিবেক জাগ্রত হওয়া সমাজকে কিছু দেওয়া ইত্যাদি হচ্ছে ভাল কাজ । আপনাদের ইউনাইটেড হওয়ার মাধ্যমে ভাল কাজের দায়ীত্ব আরো বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে । এই দায়ীত্বের পরিধিও বৃদ্ধি পেয়েছে  ।শুধূ বিয়ানীবাজার বাসীর মধ্যে আপনাদের সেবা বা কার্যক্রম চালানোর মধ্য দিয়ে দায়ীত্ব শেষ হবে না ।   প্রবাসে সিলেটের একটি শক্তিশালী সংগঠন হিসাবে অন্যান্যদের মত আপনাদেরকে বৃহত্তর সিলেটের সেবা ও কার্যক্রম গুরুদায়িত্ব বহন করতে হবে। সিলেটিরা বাক স্বাধীনতায় বিশ্বাসী, সিলেটিরা মুক্ত কলমে বিশ্বাসী, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক ঐতিহ্য লালনে  সিলেট বাসীদের রয়েছে হাজারও বছরের ইতিহাস , সিলেট বাসীরা অন্যদের মর্যাদা দানে এবং শিস্টের লালনে সিদ্ধহস্থ , অন্যায়ের প্রতিবাদে কুচক্রী হননে সিলেটিরা ভয়ঙ্কর , উন্নত জীবন প্রনালীর অধিকারী সিলেটবাসীদের রয়েছে নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতি ,  সিলেটবাসীরা অতীত ইতিহাস আর ঐতিহ্য নিয়ে সম্মুখে চলা জাতির ভিতরে এক দ্বিগবিজয়ী জাতি, প্রবাসে এ সব কিছু ধরে রাখা ও প্রমানের দায়ীত্ব আপনাদের উপরও পড়েছে ।
আপনাদের সাংগঠনিক অন্যান্য তৎপরতার মধ্যে একটি এজেন্ডা যোগ করার জন্য আমি অনুরোধ করবো। আর তা হচ্ছে শিক্ষা
-র প্রয়োজনীয়তা নিয়ে ব্যাপক প্রচারনাশিক্ষার আলোতে জ্বলে উঠা সিলেট এখন অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে এটা আর ঢেকে রাখার বিষয় নয়।  দেশে ও প্রবাসে শিক্ষার বিস্তার নিয়ে প্রথম সারিতে আপনাদের সাথে কাজ করার প্রতিশ্রুতি থাকছে  আমিও আমার অনলাইন পত্রিকা। কোন Fundamental Change বা মৌলিক পরিবর্তনের কথা বললে বাধা আসবে, এটাই স্বাভাবিক। শিক্ষার কথা বললেও বাধা আসবে, বিপত্তি আসবে কিন্তু তাই বলে থেমে থাকলে চলবে না। আপনাদের আজকের প্রচেষ্টা ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য গর্বের হয়ে থাকবে তা নিশ্চিত। ক্যানাডীয় একটি এনজিওর তত্ত্বাবধানে সিলেট এডুকেশনাল ডেভলাপম্যান্ট নামের একটি সংগঠন এ বছর থেকে প্রতিটি উপজেলায় এওয়ারনেস সৃস্টির জন্য এডুকেশনাল ক্যাম্পেইন শুরু করবে আমরা  সব করতে পারবো এমন দাবী অবান্তর কিন্তু কাঊকে না কাঊকে তো চেস্টা করতে হবে । ইতিমধ্যে সিলেটে বিভিন্ন সংগঠন ব্যাপক কাজ শুরূ করেছে প্রবাসী হিসাবে আমাদের সকলের প্রচুর দায়ীত্ত্ব রয়েছে। আজকের প্রচেস্টা হয়তোবা ৫০ বছর পর সফলাতার মুখ দেখবে আমাদের প্রজন্ম হবে আলোকিত । তাই আপনাদের সাংগঠনিক তৎপরতা ও সহযোগিতা প্রয়োজন- ।


ক্যানাডাবিডি নিউজ একটি অনলাইন পত্রিকা হলেও কিছুটা ব্যতিক্রম নিয়েই যাত্রা শুরু করেছে। মাত্র ছ’মাসে আমাদের পাঠক সংখ্যা ২৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। আগামী ৫ বৎসরে কমিউনিটির ইতিহাস সমৃদ্ধ একটি রিসোর্স সেন্টার হিসাবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। এটা সত্যিই আনন্দের যে ক্যানাডাবিডি নিউজের
এসোসিয়েট এডিটর ও নিউজ এডিটরের দায়িত্বে রয়েছেন আপনাদের বিয়ানীবাজারেরই সন্তান   জনাব জালাল কবির ও  শাহাব উদ্দিন । তাই এটা আপনাদেরই পত্রিকা –ক্যানাডাবিডি নিউজ সব সময়ই আপনাদের কথা- আপনাদের কর্ম তৎপরতার কথা বিশ্বে ছড়িয়ে দেবে-এই প্রতিশ্রুতি থাকলো ।
অবশেষে ভবিষ্যতে আপনাদের ভালো কাজের সহযোগী হওয়ার পূর্ণাঙ্গন প্রতিশ্রুতি রইলো।

ধন্যবাদান্তে-
সম্পাদক
ক্যানাডাবিডি নিউজ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*