প্রবাসী সন্তানের “Academic Strength” ও মা বাবার অজ্ঞতা !

সিনোপসিস(২৫)- প্রবাসী সন্তানের Academic Strength  মা বাবার অজ্ঞতা !
আমাদের অজান্তেই আমাদের সন্তানরা এক গুরুতর সমস্যায় ভূগছে । অশিক্ষিত, স্বল্প শিক্ষিত বা  অনেক ক্ষেত্রে উচ্চ শিক্ষিত মা বাবারাও এই সমস্যা নিয়ে সম্পূর্ন অজ্ঞাত বা সমস্যা অনুধাবনে অমনযোগী । সমস্যাটা কি ? সমস্যাটা হচ্ছে
উচ্চশিক্ষায় পিছিয়ে পরা । 

আমাদের সন্তানদের এক বিরাট অংশ কলেজ বা বিশ্ববিদ্যলয়ে যাওয়ার পর পরই ছিটকে পরছে । হাই স্কুলে অভাবনীয় সাফল্য নিয়ে আসা ( অনেক ক্ষেত্রেই ৯০% মার্ক, ২/৩ টি স্কলারশীপ) ছাত্র  বিশ্ব বিদ্যালয়ে ১ম বর্ষেই হাপিয়ে ঊঠছে অথবা ড্রপ করে সহজ রাস্তা খুজছে । কিন্তু এর কারন কি ? কারন আর কিছুই নয় WEAK FOUNDATION”. সন্তান কে স্কুলে পাঠিয়ে দিয়ে আমরা নাকে তেল দিয়ে ঘুমাচ্ছি , বাচ্চা তো ইংলিশের  স্কুলে ইংলিশ পড়ছে , সুতরাং চিন্তা কি ?। বাস্থবতা এটা নয় । ছাত্ররা যখন   গ্রেড ১১ বা ১২ এ ভাল ফল নিয়ে আসে তখন ভাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাল প্রোগ্রাম গুলোও তাদেরকে লুফে নিচ্ছে । আমরা মা বাবাও তাদের সাফল্য দেখে উচ্ছসিত। কিন্তু হাইস্কুলের ভাল ফলের মধ্যে রয়েছে শুভঙ্করের ফাকি। অনেক স্কুলই নিজেদের সুনামের জন্য বা ভাল অনুদানের জন্য  বেশী বেশী ছাত্রদেরকে কলেজ বা বিশ্ববিদ্যলয়ে  পাঠানোর পরিকল্পনা করে- তাই ছাত্রদেরকে সঠিক ভাবে গড়ে না তুলে (Lack of strength) ভাল মার্ক দিয়ে ছেড়ে দিচ্ছে । অনেক ক্ষেত্রে আবার শিক্ষকদের কারনেও এই সমস্যা ঘটছে । অনেক শিক্ষক ছাত্রদেরকে বেশী বেশী মার্ক দিয়ে নিজেদেরকে ভাল শিক্ষক প্রমানের চেষ্টা করে।এতে ছাত্ররা খুব কম পরিশ্রমেই ভাল রেজাল্ট পেয়ে যাচ্ছে কঠোর পরিশ্রমের প্রয়োজন হচ্ছে না । এতে ক্ষতিটা হচ্ছে আমাদের সন্তানদের , মৌলিক একাডেমিক শিক্ষা ওরা না পেয়েই ভাল ফল নিয়ে হাইস্কুল থেকে বের হয়ে আসছে কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে পা দিয়েই ওরা পাহাড় সম সমস্যায় ভুগছে যা থেকে বের হওয়ার রাস্তা একটাই ড্রপ অথবা সহজ কোন প্রোগ্রামে চলে যাওয়া । তাই আমাদের দায়ীত্ব হচ্ছে আমাদের সন্তান যাতে Academic Strengths নিয়ে বের হয়ে আসে (শুধূ মার্ক নয় ) সে দিকে খেয়াল রাখা । প্রয়োজনে ভাল প্রোগ্রাম , ভাল স্কুল এবং ভালো শিক্ষক চয়নে সক্রীয় হতে হবে ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*